বন্দর এলাকায় সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আবু নাছের জুয়েলের নেতৃত্বে প্রদীপ প্রজ্বলন

বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির নির্দেশনায় আজ সন্ধা ৭ টায় চট্টগ্রাম বন্দর এলাকায় সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা আবু নাছের জুয়েলের নেতৃত্বে দেশে ধর্ষন ও নারী নির্যাতনের প্রতিবাদে আলোক প্রজ্জ্বলন ও বিক্ষোভ মিছিল করা হয়।

এ সময় উপস্থিত হয়ে ধর্ষকদের শাস্তির দাবিতে একত্রতা পোষন করেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও চট্টগ্রাম বন্দর কর্মচারী পরিষদের (সিবিএ) সাধারন সম্পাদক নায়েবুল ইসলাম ফটিক।

নোয়াখালীর নারী নির্যাতন ঘটনাসহ সকল ধর্ষক- নিপীড়নের ঘটনায় সম্পৃক্ত ও পৃষ্ঠপোষকদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচার এবং নারীর প্রতি সহিংসতা স্থায়ী অবসানের দাবি করে বক্তারা বলেন, ” ধর্ষকের রাজনৈতিক পরিচয় কখনো মূখ্য হতে পারে না। ধর্ষক যেই দল বা মতের হোক না কেন ধর্ষকের শাস্তি মৃত্যুদন্ড নিশ্চত করতে হবে। সেই সাথে ধর্ষিতার সম্ভ্রম নিয়ে অপরাজনীতিকে শক্ত হাতে প্রতিহত করা হবে। মূলত ধর্ষনের বিচারকে বাধাগ্রস্থ করতেই আন্দোলনের নামে জামাতি -বামাতিরা দেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।”

এই সময় আরে উপস্থিত ছিলেন যুবনেতা মোঃ সোহেল, আব্দুস সালাম, মাসুদ শরীফ, তৌহিদুল ইসলাম তুহিন,অনুপম চন্দ্র দেবনাথ, নিশান বড়ুয়া,জটিল মজুমদার, মোঃ সুমন, জটিল মজুমদার, মোঃ হারুন।
ছাত্রলীগ নেতা ইসমাইল হোসেন শামীম, আওলাদ হোসেন বাবু, ইমাম হোসেন প্রান্ত,আল আমিন রায়হান, সজীব দাশ, মনির হোসেন জুয়েল, মোঃ ইমন,মোঃ মনির, মোঃ অনিক, মোঃ হৃদয়, আউয়াল খান শাহীন, মোঃ রাহাত, মোঃ শরিফুল, মোঃ রাফি সহ নেতৃবর্গ ।

%d bloggers like this: