করোনায় ষাটোর্ধদের মৃত্যুর হার বেশি বাংলাদেশে

মহামারী করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দেশে মারা যাওয়া রোগীদের মধ্যে ষাটোর্ধ ব্যক্তিদের সংখ্যাই বেশি। করোনায় বয়সের এই স্তরের মানুষের মৃত্যুর হার ৪৩ দশমিক ২৭ শতাংশ এবং মৃত্যুর ঘটনা বেশি ঘটছে ঢাকা ও চট্টগ্রাম বিভাগে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা।

০১ জুলাই বুধবার দুপুরে দেশের করোনা পরিস্থিতি নিয়ে নিয়মিত অনলাইন ব্রিফিংকালে তিনি এ তথ্য জানান।

অধ্যাপক ডা. নাসিমা বলেন, ‘দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে যারা মারা যাচ্ছেন, তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ বয়সের মানুষ বেশি। এ পর্যন্ত যারা মৃত্যুবরণ করেছেন, তাদের মধ্যে ষাটোর্ধ বয়সের মানুষের মৃত্যুর হার ৪৩ দশমিক ২৭ শতাংশ।’

‘অন্য বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুর হারে ৫১ থেকে ৬০ বছরের মানুষের মৃত্যু হার ২৮ দশমিক ৫১ শতাংশ; ৪১ থেকে ৫০ বছরের ১৪ দশমিক ৯৯ শতাংশ; ৩১ থেকে ৪০ বছরের ৭ দশমিক ৬২ শতাংশ; ২১ থেকে ৩০ বছরের মধ্যে ৩ দশমিক ৪৯ শতাংশ; ১১ থেকে ২০ বছরের মধ্যে ১ দশমিক ১৬ শতাংশ এবং ১০ বছরের নিচে দশমিক ৬৩ শতাংশ’।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, দেশে বুধবার সকাল পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মোট ১ হাজার ৮৮৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। এদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মারা গেছেন ৪১ জন। তাদের মধ্যে হাসপাতালে ২৩ জন আর বাড়িতে ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে।

কোভিড-১৯ নিয়ে বৈশ্বিক তথ্য সরবরাহকারী যুক্তরাষ্ট্রের জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাব অনুযায়ী, বিশ্বে করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত আক্রান্ত হয়ে পাঁচ লাখ ১১ হাজার ৫৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

%d bloggers like this: